বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার তালিকাভুক্ত বাংলাদেশি ভ্যাকসিন

আন্তর্জাতিক এইমাত্র জাতীয় জীবন-যাপন সাস্থ্য

 

নিজস্ব প্রতিবেদক : বাংলাদেশের গ্লোব বায়োটেকের তিনটি কোভিড-১৯ ভ্যাকসিনকে তালিকাভুক্ত করেছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)। শনিবার এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানিয়েছে গ্লোব বায়োটেক লিমিটেড।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ‌‘বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও) গত ১৫ অক্টোবর ২০২০ তারিখে গ্লোব বায়োটেক লিমিটেড কর্তৃক আবিষ্কৃত তিনটি ভ্যাকসিনকে কোভিড-১৯-এর ভ্যাকসিন ক্যান্ডিডেট তালিকায় অন্তর্ভুক্ত করেছে। ভ্যাকসিন ক্যান্ডিডেট তিনটি হলো, D614G viriant mRNA vaccine, DNA Piasmid vaccine এবং Adenovirus Type-5 Vector Vaccine।’

‘বাংলাদেশের গ্লোব বায়োটেকই বিশ্বের একমাত্র প্রতিষ্ঠান, যাদের সর্বোচ্চ তিনটি ভ্যাকসিনের নাম এ তালিকায় রয়েছে’,- উল্লেখ করা হয় ওই বিজ্ঞপ্তিতে।

এর আগে ৫ অক্টোবর এক সংবাদ সম্মেলনে গ্লোব বায়োটেক লিমিটেড জানায়, খরগোশ ও ইদুরের শরীরে প্রি-ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালে ভালো সাফল্য পেয়ে করোনাভাইরাসের ভ্যাকসিন আবিষ্কারের পথে রয়েছে তারা।

প্রতিষ্ঠানটি তখন বলেছিল, হিউম্যান ট্রায়ালের অনুমতি দ্রুত পাওয়া গেলে আগামী জানুয়ারির মধ্যে ‘বিএনকোভিড’ নামের ভ্যাকসিনটি বাজারে আনার ব্যাপারে তারা আশাবাদী।

সেদিন বাংলাদেশি ওই ফার্মাসিউটিক্যাল প্রতিষ্ঠানটি আরো বলে, তারা ভ্যাকসিনটি আবিষ্কারের প্রক্রিয়াতে সব ধরনের প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে। তবে প্রয়োজনীয় বাকি প্রক্রিয়া সম্পন্ন করতে সরকারের সহযোগিতা প্রয়োজন।

এর আগে, ২ জুলাই গ্লোব বায়োটেক আনুষ্ঠানিকভাবে ঘোষণা দেয়, তারা করোনাভাইরাসের ভ্যাকসিন আবিষ্কারের পথে রয়েছে এবং তাদের প্রাথমিক পরীক্ষা সফল হয়েছে।