সরলপ্রাণ জনগণ পীর সাহেবদের কথাকে কোরআনের কথা বলে বিশ্বাস করে

জাতীয়

নিজস্ব প্রতিনিধি : ইসলামই নারীর অধিকার দিয়েছে সত্য কথা বলতে গেলে, একটা জাতির অর্ধেক জনসাধারণ যদি ঘরের কোণে বসে শুধু বংশবৃদ্ধির কাজ ছাড়া আর কোনো কাজ না করে তাহলে সেই জাতি দুনিয়ায় কোনোদিন বড় হতে পারে না।…

যদিও আইনে আমাদের দেশে নারী পুরুষের সমান অধিকার, তথাপি আমাদের দেশের শিক্ষিত অশিক্ষিত লোকের মনে এই ধারণা যে- পুরুষের পায়ের নিচে মেয়েদের বেহেশত। পুরুষ যা ইচ্ছা তাই করতে পারে। মেয়েদের নীরবে সব অন্যায় সহ্য হবে বেহেশতের আশায়। তার চেয়ে বড় কথা হচ্ছে, মেয়েদের নির্ভর করতে হয় পুরুষদের অর্থের ওপর। কারণ আমাদের দেশের অশিক্ষিত ও অর্ধশিক্ষিত কিছু সংখ্যক মোল্লা পর্দা পর্দা করে জান পেরেশান করে দেয়। কোনো পরপুরুষ যেনো মুখ না দেখে, দেখলে আর বেহেশত যাওয়া হবে না, হাবিয়া দোজখের মধ্যে পুড়ে মরবে। আমাদের দেশের সরলপ্রাণ গরিব অশিক্ষিত জনসাধারণ তাদের কথা বিশ্বাস করে আর পীর সাহেবদের পকেটে টাকা গুঁজে দেয় আর তাদের কথাকে কোরআন হাদিসের কথা বলে বিশ্বাস করে।

কিন্তু ইসলামিক ইতিহাস পড়লে জানা যায় যে, মুসলমান মেয়েরা পুরুষদের সাথে যুদ্ধক্ষেত্রে যেত, অস্ত্র এগিয়ে দিতো। আহতদের সেবা শুশ্রুষা করতো। হজরত রসূলে করিমের (স.) স্ত্রী হজরত আয়েশা সিদ্দিকা নিজে বক্তৃতা করতেন, দুনিয়ায় ইসলামই নারীর অধিকার দিয়েছে।

– বঙ্গবন্ধু
সূত্র: আমার দেখা নয়া চীন। পৃষ্ঠা নং ৯৯ ও ১০০