সরিষাবাড়ীতে ছাত্রলীগের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীতে পাল্টাপাল্টি কর্মসূচি

সারাদেশ

সরিষাবাড়ী প্রতিনিধি : ছাত্রলীগের ৭৩ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে জামালপুরের সরিষাবাড়ীতে ছাত্রলীগের দু-গ্রুপে পাল্টা পাল্টি পৃথক পৃথক ভাবে কর্মসূচী পালন করেছে। এ দিবস পালনে উপজেলা ছাত্রলীগের পূর্ব ঘোষিত কর্মসূচী’র মধ্যে সরিষাবাড়ী উপজেলা আওয়ামী লীগের দলীয় কার্যালয়ে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে পুস্পস্তবক অর্পন, দলীয় ও জাতীয় পতাকা উত্তোলন, কেক কাটা শেষে আলোচনা সভা করা হয়।
উক্ত আলোচনা সভায় উপজেলা ছাত্রলীগ সরিষাবাড়ী উপজেলা শাখা’র সভাপতি আল আমীন হোসাইন শিবলু’র সভাপতিত্বে উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ্ব ছানোয়ার হোসেন বাদশা, সাধারণ সম্পাদক উপাধ্যক্ষ হারুন অর রশীদ প্রমুখ বক্তব্য রাখেন। পরে দলীয় কার্যালয় থেকে উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি আল আমীন হোসাইন শিবলু’র নেতৃত্বে আরামনগর বাজার ট্রাক সমিতি মোড পর্যন্ত র‍্যালী শেষ করে।
এ দিকে তথ্য প্রতিমন্ত্রী আলহাজ্ব ডাঃ মুরাদ হাসান এমপি এর সর্মথক উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি প্রার্থী শরিফ আহাম্মেদ নিরব এর নেতৃত্বে পৌর সভার শিমলা বাজার বাসষ্ট্যান্ড হতে মিছিল সহকারে উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে পুস্পস্তবক অর্পন করে। পরে পৌর সভার শিমলা বাজার বঙ্গবন্ধু চত্বরে শোভাযাত্রা নিয়ে ফিরে এসে আলোচনা সভা করে।
আলোচনা সভায় শরিফ আহাম্মেদ নিরব সভাপতিত্ব করেন। এতে আরোও বক্তব্য রাখেন- সরিষাবাড়ী কলেজ ছাত্র লীগের সভাপতি আরিফুল ইসলাম, সরিষাবাড়ী কলেজ ছাত্র সংসদের জি এস রাজন আহম্মেদ, এ জি এস জুবায়ের রহমান সুমন, পৌর ৪ নং ওয়ার্ড ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ফজলে রাব্বি,৭ নং ওয়ার্ডের সভাপতি জুয়েল রানা জিতু,৯ নং ওয়ার্ডের সভাপতি কামরুল হাসান,প্রমুখ। ছাত্রলীগের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে দু গ্রুপে’র এ পাল্টাপাল্টি র‌্যলী কে শো ডাউন বলে আখ্যায়িত করেছেন।
এ ব্যাপারে সরিষাবাড়ী উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি আল আমীন হোসাইন শিবলু জানান, ছাত্রলীগ করতে হলে উপজেলা ছাত্রলীগের ব্যানারে কাজ করতে হবে। আমরা ছাত্রলীগের কর্মসূচী পালন করেছি সাবেক ও বর্তমান ছাত্রলীগের নেতৃত্বাধীন ছাত্রলীগদের নিয়ে। যারা উপজেলা ছাত্রলীগের কর্মসূচীতে না এসে পৃথক কর্মসূচী পালন করেছে এ বিষয়ে জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি/সাধারণ সম্পাদককে অবগত করা হবে।
জানতে চাইলে উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি প্রার্থী শরিফ আহাম্মেদ নিরব বলেন.যারা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর ভাস্কর্য ভাংচুর ঘটনায় উপজেলা ছাত্রলীগের পক্ষ থেকে কোন কর্মসূচী পালন করে নাই সে জন্য আমরা বঙ্গবন্ধু আর্দশের সৈনিক তাই উপজেলা ছাত্রলীগের কর্মসূচীতে অংশ গ্রহন না করে আমরা বণ্যাঢ্য আয়োজনে পৃথক ভাবে কর্মসূচী গ্রহন করে ছাত্রলীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালন করেছি।