নড়াইল ও কালিয়া পৌরসভা নির্বাচনে আ’লীগের ২ বিদ্রোহী প্রার্থীকে বহিষ্কার

সারাদেশ

মো:রফিকুল ইসলাম : রবিবার (১০জানুয়ারী) মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের শেষ দিনে নড়াইল ও কালিয়া পৌরসভায় আ’লীগের দুই বিদ্রোহী প্রার্থী মনোনয়ন পত্র প্রত্যাহার না করায় তাদের দল থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে।
কালিয়া পৌরসভায় আওয়ামীলীগের ২জনের মধ্যে এক জন বিদ্রোহী প্রার্থী কালিয়া উপজেলা আওয়ামীলীগের সহ সভাপতি বি এম এমদাদুল হক “টুলু মনোনয়ন পত্র প্রত্যাহার করেছেন।
দু’টি পৌরসভায় বর্তমানে দু’জন বিদ্রোহী প্রার্থী মেয়র পদে লড়ছেন।
নড়াইল জেলা নির্বাচন কমিশন সূত্রে জানা যায়,নড়াইল পৌরসভায় মেয়র পদে নির্বাচন করছেন ৪ জন,এরা হলেন,আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী “আনজুমান আরা,বিএনপি মনোনীত জুলফিকার আলী মন্ডল, আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে পৌর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক সরদার আলমগীর হোসেন আলোম, ইসলামী শাসনতন্ত্র আন্দোলনের মাওলানা মোঃ খায়রুজ্জমান।
কালিয়া পৌরসভায় মেয়র পদে ৩জন নির্বাচন করছেন। এরা হলেন আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী ওয়াহিদুজ্জমান হীরা, বিএনপি মনোনীত ওয়াহিদুজ্জমান মিলু ও আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী হিসেবে বর্তমান মেয়র কালিয়া সেচ্ছাসেবক লীগের সাবেক আহবায়ক ফকির মুশফিকুর রহমান লিটন।
জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট সুবাস চন্দ্র বোস এ প্রতিবেদক কে জানান,দলীয়ভাবে পূর্বে মিটিং করে আমি ও জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক স্বাক্ষরিত চিঠিতে বিদ্রোহীদের জানিয়ে দেওয়া হয়েছিল।
মানোনয়নপত্র প্রত্যাহার করা না হলে দল থেকে তাদের বহিষ্কার করা হবে।
২জন মেয়র প্রার্থী মনোনয়ন প্রত্যাহার না করে গঠনতন্ত্র পরিপন্থি কাজ করায় তাদের দল থেকে বহিস্কার করা হলো।
কোনো মিটিং করে এ বহিস্কার করা হয়েছে কিনা এ প্রশ্নে তিনি বলেন, মিটিং করার কোনো প্রয়োজন নেই।
নড়াইল পৌরসভায় সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর পদে ১১ ও সাধারণ পদে ৩৯জন এবং কালিয়া পৌরসভায় সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর পদে ৯জন এবং সাধারণ পদে ৩২জন নির্বাচনী মাঠে রয়েছেন।
প্রত্যাহারের শেষ দিনে দু’টি পৌরসভায় সংরক্ষিত মহিলা আসনে ১জন এবং সাধারণ কাউন্সিলর পদে ৯জন প্রত্যাহার করেছেন।
সোমবার (১১জানুয়ারী) প্রার্থীদের প্রতীক বরাদ্দ এবং আগামী ৩০ জানুয়ারী নড়াইল পৌরসভার নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।
জেলা নির্বাচন অফিসার মোঃ ওয়ালিউল্লাহ বলেন, গত ৩ জানুয়ারী মনোনয়নপত্র বাছাই হয়েছে,১০ জানুয়ারী প্রার্থীতা প্রত্যাহার হয়েছে,১১ জানুয়ারী প্রতীক বরাদ্দ দেয়া হবে,৩০ জানুয়ারী এ ২’দুটি পৌরসভার নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।