বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর-এর শোকবার্তা

জাতীয় রাজনীতি

নিজস্ব প্রতিবেদক : প্রথম আলোর সিনিয়র সাংবাদিক ও যুগ্ম সম্পাদক মিজানুর রহমান খান করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে সোমবার সন্ধ্যায় রাজধানীর একটি বেসরকারী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ইন্তেকাল করেছেন। ইন্না লিল্লাহে ওয়া ইন্না ইলাইহে রাজিউন। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৫৩ বছর। মিজানুর রহমান খানের মৃত্যুতে গভীর শোক ও দু:খ প্রকাশ করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।
এক শোকবার্তায় বিএনপি মহাসচিব বলেন, “মরহুম মিজানুর রহমান খান ছিলেন অসাধারণ মেধাবী, স্পষ্টবাদী ও সত্য সন্ধানী সাংবাদিক। করোনায় আক্রান্ত হয়ে মাত্র ৫৩ বছর বয়সে তাঁর মৃত্যুতে আমি তাঁর শোকাহত পরিবার-পরিজনদের প্রতি গভীর সহমর্মিতা জ্ঞাপন করছি। মত প্রকাশের স্বাধীনতা নিশ্চিত করতে মরহুম মিজানুর রহমান খান এর ভূমিকা ছিল প্রশংসনীয়। স্বাধীন সাংবাদিকতার মহান ব্রতকে সামনে রেখে তিনি নিরলস কাজ করেছেন, সেটি তাঁর সতীর্থ সাংবাদিকরা চিরদিন শ্রদ্ধার সাথে মনে রাখবেন বলে আমি দৃঢ়ভাবে বিশ্বাস করি। একজন নীতিবান সাংবাদিক হিসেবে তাঁর লেখনি ছিল সবসময় সত্য ও ন্যায়ের পক্ষে। তাঁর সততা, নিষ্ঠা ও কর্তব্যবোধের জন্য তিনি সকলের নিকট ছিলেন শ্রদ্ধাভাজন। সাংবাদিকতা জগতে তাঁর অবদান নি:সন্দেহে অনস্বীকার্য। গণমাধ্যমের স্বাধীনতা হরণের এই দু:সময়ে তাঁর মৃত্যু এক বিশাল ক্ষতি। পরম করুণাময় আল্লাহর দরবারে মোনাজাত করি তিনি যেন তাঁকে জান্নাতবাসী করেন।”
বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর শোকবার্তায় মরহুম মিজানুর রহমান খান এর বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা করেন এবং শোকাহত পরিবারবর্গ, আত্মীয়স্বজন, গুণগ্রাহী ও শুভানুধ্যায়ীদের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান।