রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের উদ্যোগে শীতার্ত মানুষের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ

রাজশাহী রাজনীতি

নিজস্ব প্রতিনিধি : বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ রাজশাহী মহানগরের পক্ষ থেকে বোয়ালিয়া (পশ্চিম) থানা, মতিহার থানা ও শাহ মখদুম থানার অন্তগর্ত বিভিন্ন ওয়ার্ডের শীতার্ত মানুষদের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ করা হয়েছে।
মঙ্গলবার পৃথক তিনটি অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে কম্বল বিতরণ করেন রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগ সভাপতি ও মাননীয় রাসিক মেয়র এ.এইচ.এম খায়রুজ্জামান লিটন।

বোয়ালিয়া (পশ্চিম) থানা: মঙ্গলবার দুপুর ১২টায় দড়িখরবনা এলাকায় বোয়ালিয়া থানার অন্তর্গত সাংগঠনিক ৭টি ওয়ার্ডের শীতার্ত মানুষদের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ করা হয়। প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে কম্বল বিতরণ করেন রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগ সভাপতি ও রাসিক মেয়র এ.এইচ.এম খায়রুজ্জামান লিটন। উল্লেখ্য, বোয়ালিয়া থানার অন্তর্গত সাংগঠনিক ৯, ১০, ১১, ১৩, ১৪ (পূর্ব), ১৪ (পশ্চিম) এবং ১৫ নং ওয়ার্ডের ১৪০০ জনের প্রত্যেককে একটি করে কম্বল প্রদান করা হয়।

এ সময় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখতে গিয়ে মেয়র খায়রুজ্জামান লিটন বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন আওয়ামী লীগ সরকার সব সময় মানুষের পাশে থাকে। করোনা মহামারিতে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে আমরা মানুষের পাশে ছিলাম। করোনা ভাইরাসে ক্ষতিগ্রস্থ গরীব, নিম্ন আয়ের এবং কর্মহীন মানুষকে দফায় দফায় খাদ্য সহায়তা, অর্থ সহায়তাসহ বিভিন্ন সহায়তা প্রদান করেছি।

মেয়র আরো বলেন, শীতের কষ্ট কিছু হলেও লাঘবের জন্য কম্বল নিয়ে মানুষের কাছে হাজির হয়েছি। এভাবেই যেকোন দুর্যোগে, দুঃসময়ে আওয়ামী লীগ মানুষের পাশে আছে, ছিল এবং আগামীতেও থাকবে।

বোয়ালিয়া থানা (পশ্চিম) আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুস সালামের সভাপতিত্বে আয়োজিত অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ডাবলু সরকার। তিনি তার বক্তব্যে বলেন, ২০০৮ সালে নির্বাচনে আমরা বলেছিলাম খায়রুজ্জামান লিটন ভাইকে একটা সুযোগ দেন, ব্যাপক উন্নয়ন দেখতে পাবেন। ২০০৮ থেকে ২০১৩ সাল পর্যন্ত প্রথম মেয়াদে মেয়র থেকে রাজশাহীর দৃশ্যমান উন্নয়ন করেন লিটন ভাই। ২০১৮ সালে লিটন ভাই আবার মেয়র নির্বাচিত হয়েছেন। এর মাত্র দুই বছরেই রাজশাহীর ব্যাপক উন্নয়ন হয়েছে। রাজশাহীর উন্নয়নের জন্য সিটি কর্পোরেশনের ইতিহাসে সর্ববৃহৎ প্রায় তিন হাজার কোটি টাকার প্রকল্প অনুমোদন দিয়েছেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী। লিটন ভাইয়ের নেতৃত্বে আগামী তিন বছরে রাজশাহীর চেহারায় পাল্টে যাবে। ডাবলু সরকার আরো বলেন, আপনারা দেখেছেন্, মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে রাজশাহীতে লিটন ভাইয়ের নেতৃত্বে করোনাকালে খাদ্য, অর্থ সহ বিভিন্নভাবে মানুষকে সহায়তা প্রদান করেছি। আওয়ামী লীগ যেকোন বিপদে মানুষের পাশে থাকে। আরো তো অনেক রাজনৈতিক দল আছে, তাদেরকে করোনাকালে মানুষের পাশে থাকতে আমরা দেখতে পাইনি।

বোয়ালিয়া থানা (পশ্চিম) আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শামসুজ্জামান রতনের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে মঞ্চে উপবিষ্ট ছিলেন মহানগর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি মাহফুজুল আলম লোটন, বীর মুক্তিযোদ্ধা নওশের আলী, বদিউজ্জামান খায়ের, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মোস্তাক হোসেন, সাংগঠনিক সম্পাদক মীর ইশতিয়াক আহমেদ লিমন, ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক আলহাজ্ব জাহিদুল ইসলাম জাহিদ, কৃষি বিষয়ক সম্পাদক মীর তৌফিক আলী ভাদু, বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক রবিউল ইসলাম রবি, সদস্য এনামুল হক কলিন্স, মহানগর যুবলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক তৌরিদ আল মাসুদ রনি, ১৪নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আনোয়ার হোসেন আনার প্রমুখ। এ সময় ৭টি সাংগঠনিক ওয়ার্ডের সভাপতি ও সম্পাদকবৃন্দ সহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

মতিহার থানা: বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ রাজশাহী মহানগরের সহযোগিতায় মতিহার থানা আওয়ামী লীগের আয়োজনে মতিহার থানার অন্তর্গত সাংগঠনিক ৯টি ওয়ার্ডের শীতার্ত মানুষদের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ করা হয়েছে। মঙ্গলবার দুপুর আড়াইটায় রাজশাহী প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ^বিদ্যালয়ের মিলনায়তনে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে কম্বল বিতরণ করেন রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগ সভাপতি ও রাসিক মেয়র এ.এইচ.এম খায়রুজ্জামান লিটন। উল্লেখ্য, মতিহার থানার অন্তর্গত সাংগঠনিক ৯টি ওয়ার্ডের ১৮০০ শীতার্ত মানুষের প্রত্যেককে একটি করে কম্বল প্রদান করা হয়।
অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে মেয়র খায়রুজ্জামান লিটন বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে করোনাকালে গরীব, নিম্ন আয়ের এবং কর্মহীন মানুষকে দফায় দফায় খাদ্য সহায়তা, অর্থ সহায়তাসহ বিভিন্ন সহায়তা প্রদান করেছি। সরকারি সহযোগিতা ছাড়াও ব্যক্তিগত উদ্যোগে মানুষকে দফায় দফায় সহযোগিতা করা হয়েছে। শীতের প্রকোপ বৃদ্ধি পাওয়ায় শীতার্তদের মাঝে কম্বল বিতরণ করা হচ্ছে। একটা কম্বল হয়তো খুব একটা শীত নিবারন করতে পারবে না, তবে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী যে আপনাদের আছে আছেন, সরকারের স্বদিচ্ছা আছে, সেটি অনেক বড় বিষয়। এভাবে সব সময় আওয়ামী লীগ আপনাদের পাশে থাকবে।
মতিহার থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল মান্নানের সভাপতিত্বে আয়োজিত অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ডাবলু সরকার। তিনি তার বক্তব্যে বলেন, একজন ১৭ বছর ধরে রাজশাহীতে মেয়র ছিলেন, কিন্তু তেমন উন্নয়ন করেননি। ২০০৮ থেকে ২০১৩ সাল পর্যন্ত প্রথম মেয়াদে মেয়র থেকে রাজশাহীর দৃশ্যমান উন্নয়ন করেছেন লিটন ভাই। দ্বিতীয় মেয়াদেও ব্যাপক দৃশ্যশান উন্নয়ন করছেন। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে রাজশাহীতে করোনাকালে খাদ্য, অর্থ সহ বিভিন্নভাবে মানুষকে সহায়তা করা হয়েছে। শীতের প্রকোপ বৃদ্ধি পাওয়ায় শীতার্তদের জন্য শীতবস্ত্রের ব্যবস্থা করে দিয়েছেন।
মতিহার আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. আলাউদ্দিনের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন মহানগর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি মাহফুজুল আলম লোটন, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মোস্তাক হোসেন, সাংগঠনিক সম্পাদক মীর ইশতিয়াক আহমেদ লিমন, কৃষি বিষয়ক সম্পাদক মীর তৌফিক আলী ভাদু, উপ-দপ্তর সম্পাদক পঙ্কজ কুমার দে, কার্যনির্বাহী সদস্য আলেমুল হাসান সজল, আশীষ তুরু দে সরকার অর্পণ প্রমুখ।