শরণখোলায় ফেসবুক ও ইউটিউব সাংবাদিক ইয়াবাসহ গ্রেপ্তার

অপরাধ সারাদেশ

নইন আবু নাঈম : বাগেরহাটের শরণখোলায় সাখাওয়াত হোসেন (৩৫) নামে এক ফেসবুক ও ইউটিউবের ভূয়া সাংবাদিক ইয়াবাসহ গ্রেপ্তার হয়েছে। বুধবার দুপুর ২টার দিকে উপজেলা সদরের পাঁচরাস্তা মোড় থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। তল্লাশি করে তার মোটরসাইকেলের ইন্ডিকেটর লাইটের মধ্যে থেকে সাত পিচ ইয়াবা উদ্ধার করে পুলিশ।
উপজেলার রায়েন্দা ইউনিয়নের মালিয়া রাজাপুর গ্রামের আক্কেল আলী হাওলাদারের ছেলে গ্রেপ্তার সাখাওয়াত নিজেকে ‘প্রতিদিন খবর টোয়েন্টিফোর’ নামে একটি অনলাইন পোর্টালের শরণখোলা প্রতিনিধি বলে পরিচয় দেয়। তার বিরুদ্ধে মাদক আইনে মামলা দায়ের করেছে পুলিশ।
ভুক্তভোগ দের মধ্যে মালিয়া রাজাপুর গ্রামের বাসিন্দা শহিদুল ইসলাম খোকন, হালিম হাওলাদার, সবুর হাওলাদার জানান, সাখওয়াত তাদের প্রত্যেকের বাড়ি চুরি করেছে। সে এলাকায় ছিচকে চোর হিসেবে পরিচিত। একসময় সে মানুষের বাড়িঘরে হানা দিয়ে হাড়িপাতিলসহ বিভিন্ন মালামাল চুরি করে বিক্রি করতো। চুরি করতে গিয়ে বহুবার ধরা পড়ে জনগণের হাতে মারও খেয়েছে। এখন সে সাংবাদিক পরিচয় দিয়ে মাদকের কারবার করছে। সাংবাদিক লেখা স্টিকার লাগানো মোটরসাইকেলে করে চাহিদা অনুযায়ি গ্রাহকের কাছে ইয়াবা পৌঁছে দেওয়াই তার মূল পেশা বলে জানান তারা।
শরণখোলা প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি প্রবীন সাংবাদিক শেখ মোহাম্মদ আলী বলেন, বর্তমানে ব্যাঙের ছাতার মতো ভূয়া অনলাইন পোর্টাল, ইউটিউব ও ফেসবুক সাংবাদিক গজিয়ে উঠেছে। হকার, ভ্যানওয়ালা, শ্রমিকরাও এখন সাংবাদিক পরিচয় দিচ্ছে। এতে সাংবাদিকতার এই মহান পেশার মর্যাদা ক্ষুন্ন হচ্ছে। সাধারণ মানুষও বিভ্রান্ত হচ্ছে। শরণখোলায় একশ্রেণি লোক এভাবে একাধিক পোর্টাল খুলে মোটরসাইকেলে সাংবাদিক লেখা স্টিকার লাগিয়ে এলাকা দাপিয়ে বেড়াচ্ছে। এদের বিরুদ্ধে দ্রæত ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য প্রশাসনের কাছে দাবি জানাই।
শরণখোলা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. সাইদুর রহমান জানান, সাখাওয়াতের বিরুদ্ধে ইয়াবা কারবারের অভিযোগ থাকায় তাকে বেশ কিছুদিন নজরদারিতে রাখা হয়েছিল। অবশেষে তাকে ইয়াবাসহ গ্রেপ্তার করা হয়।