ভাষা-আন্দোলনের সূত্রপাত

জাতীয়

সাবরীনা মান্নান : ভাষা আন্দোলনের কথা বলতে গিয়ে কোন এক কবি লিখেছেন, ” জাতি ধর্ম বর্ণ ভুলে ভাষার জন্য প্রাণ, অকুতোভয় বীর বাঙালী, করে গেছে দান।”
ভাষা-আন্দোলনের সূত্রপাত হয়েছিলো ১৯৪৮ সালে, ১২৫২ সালের একুশে ফেব্রুয়ারিতে এসে এ আন্দলোন চূড়ান্ত রূপ নিয়েছিলো। পাকিস্তানের সে সময়কার মূখ্যমন্ত্রী নুরুল আমীনের নির্দেশে, এ দিনে ছাএ- জনতার মিছিলে গুলি চালিয়ে হত্যা করা হয় সালাম, জব্বার, রফিক, বরকত, সফিউর সহ নাম না জানা বহু বাঙালীকে। নির্মম হত্যাকাণ্ড চালানো হয়।

একুশ আমাদের জাতীয় চেতনার মুক্তির উৎস হিসেবে কাজ করেছে। ২০১০ সালে ২১ শে অক্টোবর জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদের ৬৫ তম অধিবেশনে ২১ শে ফেব্রুয়ারি আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস হিসেবে মর্যাদা লাভ করে।
বিশ্বের বিভিন্ন দেশে উদযাপিত হয় আমাদের বীর সন্তানদের বীরগাথায় সমৃদ্ধ এ দিনটি।

তথাপি একটি প্রশ্ন থেকেই গেছে, ২১ শে ফেব্রুয়ারি, তুমি কি শুধু আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস? কেনো যেনো মনে হয় আমাদের বীর যোদ্ধাদের প্রাণের বিনিময়ে অর্জিত মাতৃভাষা, দিন দিন তার সৌন্দর্য হারিয়ে ফেলছে। আমরা আজকাল আমাদের ছেলেমেয়েদের ইংরেজি মাধ্যমে পড়াতে বেশি আগ্রহী, কথায় কথায় বাংলা বলতে গিয়ে অন্য ভাষা ব্যাবহার করাকে আধুনিকতা মনে করি, শপিং মল, মডেল টাউন এ শব্দগুলো আমাদের কাছে অধিক গ্রহনযোগ্যতা পায়।

আজ আমাদের ভাষা দিবস শুধু আমাদের একার নয়, তাই আমাদের বাংলা ভাষার প্রকৃত সৌন্দর্য রক্ষা করা প্রতিটি বাঙালীর নৈতিক দায়িত্ব।