শাহবাগে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ, আটক ১০

জাতীয়

নিজস্ব প্রতিবেদক : স্থগিত হওয়া পরীক্ষাসমূহ সচল করার দাবিতে শাহবাগে বিক্ষোভ মিছিল করেছে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। বিক্ষোভ শেষে অবরোধের চেষ্টা করলে পুলিশ তাদেরকে বাধা দেয়।
শিক্ষার্থীদের দাবি, অন্তত ১০ জন আন্দোলনকারীকে আটক করেছে পুলিশ।
বৃহস্পতিবার (২৫ ফেব্রুয়ারি) প্রথমে সকাল সাড়ে ১০টায় শাহবাগ মোড়ে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের কিছু শিক্ষার্থী জড়ো হলে তাদের আটক করে পুলিশ। আটককৃতদের মুক্তির দাবিতে এখনো শাহবাগ মোড়ে অবস্থান করছেন শিক্ষার্থীরা। তাদের দাবি আটককৃতদের মুক্তি না দেয়া পর্যন্ত তারা শাহবাগ ছাড়বেন না।
ছাত্রদের বক্তব্য অনুযায়ী আটককৃতরা হলেন- তেজগাঁও কলেজের শিক্ষার্থী কাউসার আহমেদ, হাসান আল মাহদী, শাহ দিদার, সিদ্ধেশ্বরী কলেজের আল আমিন মিনা, সাগর, খিলগাঁও মডেল কলেজের মোহাম্মদ সজল মিয়া, হাজী সেলিম বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের মিরাজুল ইসলাম। বাকি তিনজনের নাম জানা যায়নি।
এদিকে পুলিশ শিক্ষার্থীদের ছত্রভঙ্গ করে দিলেও ফের তারা একত্রিত হয়ে বিক্ষোভ প্রদর্শন করেন। এ সময় শিক্ষার্থীরা, ‘আমাদের দাবি, আমাদের দাবি, মানতে হবে মানতে হবে’, ‘আমাদের পরীক্ষা নিতে হবে, নিতে হবে’, ‘শিক্ষা নিয়ে প্রহসন চলবে না, চলবে না’, ‘আমার ভাইয়ের মুক্তি, দিতে হবে দিতে হবে’ ইত্যাদি স্লোগান দিতে থাকেন।
আন্দোলনকারীদের দাবি, স্থগিত পরীক্ষাসমূহ পুনরায় রুটিন প্রকাশ করে পরীক্ষা নিতে হবে। আটককৃতদের দ্রুত মুক্তি দিতে হবে।
আটককৃতদের ব্যাপারে রমনা জোনের ডিসি সাজ্জাদুর রহমান বলেন, ‘তারা আসলেই শিক্ষার্থী কিনা আমাদের সন্দেহ। আমাদের কাছে খবর এসেছে এরা অনুপ্রবেশকারী। আমরা যাচাই-বাছাই করে তাদের ছেড়ে দেব। আর শেষে যাকে আটক করা হয়েছে সে যে বহিরাগত সেটা আপনারাও বলছেন।’
তবে শিক্ষার্থীরা বলেন, ‘আটকৃতদের না ছাড়া পর্যন্ত আমরা এখান থেকে যাব না। ছেড়ে দিলে আমরা ভিসি বরাবর স্মারকলিপি দেব। আর যদি আমাদের দাবি না মানা হয় আমরা আবার বৃহত্তর আন্দোলনে যাব।’
তেজগাঁও কলেজের শিক্ষার্থী মামুনুর রহমান বলেন, ‘আমাদের মধ্য থেকে ১০ জন শিক্ষার্থীকে আটক করেছে পুলিশ। আমাদের দাবি হচ্ছে তাদের এখনই ছাড়তে হবে এবং চলমান পরীক্ষা ফেব্রুয়ারির মধ্যেই শেষ করতে হবে।’