ইউপি সদস্য নুর আলী হত্যাকান্ডে জড়িত ৩ জন র‌্যাবের হাতে আটক

অপরাধ আইন ও আদালত সারাদেশ

অভয়নগর (যশোর) প্রতিনিধি : অভয়নগরে শুভরাড়া ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য নুর আলী হত্যাকান্ডে জড়িত ৩ জনকে আটক করেছে যশোর র‌্যাব-৬ এর সদস্যরা। আটককৃতরা হলেন, অভয়নগরের রানাগাতী গ্রামের আফছার আকুঞ্জির ছেলে মিজানুর রহমান আকুঞ্জি, শুভরাড়া গ্রামের আব্দুল মজিদ গাজীর ছেলে সোহাগ গাজী ও একই এলাকার মিজান গাজী।
র‌্যাব জানায়, ১২ মার্চ রাত ১১টার পর রানাগাতী গ্রামের মহির আকুঞ্জির বসত বাড়ির উঠানে অভিযান চালিয়ে ৩ জনকে আটক করা হয়। এসময় তাদের নিকট থেকে একটি দেশী তৈরী শর্টগান ও ৫ রাউন্ড শর্টগানের কার্তুজ এবং ৩টি মোবাইল ফোন উদ্ধার করা হয়েছে।
উল্লেখ্য, বিগত ৭ মার্চ সন্ধ্যায় নুর আলী মেম্বার বাবুরহাট থেকে তার ছেলের সাথে মোটরসাইকেলে করে বাড়ি ফিরছিলেন। ঐ দিন রাত ৮টার সময় নুর আলীকে লক্ষ্য করে সন্ত্রাসীরা গুলি ছোড়ে। প্রথমে তার ছেলের পায়ে গুলি লাগার সাথেই মোটরসাইকেল থেকে দুই জনেই সিটকে পড়ে যায় মাটিতে। এসময় সন্ত্রাসীরা নুর আলী মেম্বারের মাথায় গুলি করে। ঘটনাস্থলেই নুর আলী মেম্বারের মৃত্যু হয়। নুর আলী মেম্বারের ছেলে আহত হয়। ছেলেকে চিকিৎসার জন্যে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। পরে পুলিশ এসে লাশ উদ্ধার করে নিয়ে যায়। এ ঘটনায় ৪৮ ঘন্টা পর অভয়নগর থানায় নিহত নুর আলী মেম্বারের স্ত্রী বাদি হয়ে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। তারপর থেকে অভয়নগর থানা পুলিশ, যশোর র‌্যাব-৬ ও ডিবি পুলিশের যৌথ অভিযান অব্যহত চলতে থাকে। তারই এক পর্যায় গোপন সংবাদের ম্ধ্যমে রানাগাতী গ্রামের মহির আকুঞ্জির বসত বাড়ির উঠানে অভিযান চালিয়ে ৩ জনকে আটক করে র‌্যাব-৬ এর একটি চৌকস দল। আটককৃতরা র‌্যাবের কর্মকর্তাদের কাছে নুর আলী মেম্বার হত্যার সাথে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছে।