কেশবপুরে সাংবাদিকের উপর হামলায় মামলা, আটক ১

অপরাধ আইন ও আদালত সারাদেশ

যশোর প্রতিনিধি : যশোরের কেশবপুর প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি আজিজুর রহমানের উপর সন্ত্রাসী হামলার ঘটনায় কেশবপুর থানায় একটি মামলা হয়েছে। পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে সন্ত্রাসী জামাল উদ্দীনকে আটক করে জেল হাজতে প্রেরণ করেছে। এই ঘটনায় কেশবপুর থানায় ৮ জনের নামে মামলা হয়েছে।
সুত্র জানায়, পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশের জের ধরে শুক্রবার বিকেলে শহরের মধ্যকুল এলাকায় সাংবাদিক আজিজুর রহমানের মাছের ঘের দখলে ব্যর্থ হয়ে জামালের নেতৃত্বে একদল সন্ত্রাসী হামলা চালিয়ে মারপিট করে। এ হামলায় আজিজুর রহমান তার ভাই আমিনুর রহমান ও ভাইপো মাহিরি মোহাম্মদ জয় আহত হয়। পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে সন্ত্রাসী জামাল উদ্দীনকে আটক করে জেল হাজতে প্রেরণ করে।
সাংবাদিককে মারপিটের প্রতিবাদে কেশবপুর প্রেসক্লাবের নিন্দা প্রস্তাব গ্রহণ ও পৌর ভ্যান শ্রমিক সমিতির উদ্যোগে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে। শনিবার সন্ধ্যায় কেশবপুর প্রেসক্লাবের উদ্যোগে নিজস্ব হলরুমে সভাপতি আশরাফউজ্জামান খানের সভাপতিত্বে জরুরী এক বিশেষ সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।
সভায় ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক উৎপল দে’র পরিচালনায় বক্তব্য রাখেন কেশবপুর প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি আজিজুর রহমান, সহ-সভাপতি আব্দুল হাই সিদ্দিক, সাবেক সাধারণ সম্পাদক মোতাহার হোসাইন, কোষাধ্যক্ষ শামসুর রহমান, দফতর সম্পাদক, মশিয়ার রহমান, গ্রন্থাগার সম্পাদক মতিয়ার রহমান, নির্বাহী সদস্য নুরুল ইসলাম খান, আব্দুলাহ আল ফুয়াদ, সাধারণ সদস্য দিলীপ মোদক, আব্দুস সালাম, মশিউর রহমান, রাবেয়া ইকবাল, আব্দুল মজিদ, মিলন দে, কামরুজ্জামান রাজু , আয়ূব খান, আলমগীর হোসেন, ওলিয়ার রহমান, রহুল আমিন বিশ্বাস সহ প্রমুখ।
উল্লেখ্য, পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশের জের ধরে শুক্রবার বিকেলে শহরের মধ্যকুল এলাকায় সাংবাদিক আজিজুর রহমানের মাছের ঘের দখলে ব্যর্থ হয়ে জামালের নেতৃত্বে একদল সন্ত্রাসী হামলা চালিয়ে মারপিট করে। এ হামলায় আজিজুর রহমান তার ভাই আমিনুর রহমান ও ভাইপো মাহিরি মোহাম্মদ জয় আহত হয়। পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে সন্ত্রাসী জামাল উদ্দীনকে আটক করে জেল হাজতে প্রেরণ করে। এ ঘটনায় কেশবপুর থানায় ৮ জনের নামে মামলা দায়ের করেছে ভুক্তভুগী ঐ সাংবাদিক।
জানতে চাইলে কেশবপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ জসিম উদ্দিন বলেন, সাংবাদিক আজিজুর রহমানের উপর হামলার ঘটনায় মামলা হয়েছে। তৎক্ষনাৎ পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে শেখ জামাল উদ্দিন নামের একজনকে আটক করে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে। অপর আসামীদের ধরতে পুলিশের অভিযান অব্যহত রয়েছে।