মৃত্যু একশ ছুঁই ছুঁই

এইমাত্র জাতীয় জীবন-যাপন সারাদেশ সাস্থ্য

ভারতে সংক্রমণের বিশ্বরেকর্ড

 

নিজস্ব প্রতিবেদক : দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন আরও ৯৮ জন। এ নিয়ে মহামারি এই ভাইরাসে মোট মৃত্যু হয়েছে ১০ হাজার ৭৮১ জনের। এছাড়া গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ৪ হাজার ১৪ জন। এতে দেশে এখন পর্যন্ত মোট করোনা রোগীর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৭ লাখ ৩৬ হাজার ৭৪ জনে।
করোনাভাইরাস নিয়ে বৃহস্পতিবার বিকেলে স্বাস্থ্য অধিদফতরের প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।
প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে আরও উল্লেখ করা হয়, এদিন সুস্থ হয়েছেন আরও ৭ হাজার ২৬৬ জন। এ পর্যন্ত মোট সুস্থ হয়েছেন ৬ লাখ ৪২ হাজার ৪৪৯ জন।
এর আগে বুধবার করোনায় ৯৫ জন মারা যান ও নতুন করে ৪ হাজার ২৮০ জন করোনা আক্রান্ত হন।
এদিকে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ও প্রাণহানির পরিসংখ্যান রাখা ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডওমিটারের তথ্যানুযায়ী, বৃহস্পতিবার সকাল পর্যন্ত গত ২৪ ঘণ্টায় বিশ্বে মারা গেছেন ১৩ হাজার ৯১৪ জন এবং নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ৮ লাখ ৭৩ হাজার ১২ জন। এ নিয়ে বিশ্বে মোট করোনায় মৃত্যু হয়েছে ৩০ লাখ ৭০ হাজার ৮৬৪ জনের এবং আক্রান্ত হয়েছেন ১৪ কোটি ৪৪ লাখ ১৭ হাজার ১১৭ জন। এ ছাড়া সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ১২ কোটি ২৮ লাখ ৭৭ হাজার ৯৭৭ জন।
করোনায় এখন পর্যন্ত সবচেয়ে বেশি সংক্রমণ ও মৃত্যু হয়েছে বিশ্বের ক্ষমতাধর দেশ যুক্তরাষ্ট্রে। তালিকায় শীর্ষে থাকা দেশটিতে এখন পর্যন্ত করোনা সংক্রমিত হয়েছেন ৩ কোটি ২৬ লাখ ৬০ হাজার ২৪৫ জন। মৃত্যু হয়েছে ৫ লাখ ৮৩ হাজার ২৮৮ জনের।
আক্রান্তে দ্বিতীয় ও মৃত্যুতে চতুর্থ অবস্থানে থাকা ভারতে এখন পর্যন্ত সংক্রমিত হয়েছেন এক কোটি ৫৯ লাখ ২৪ হাজার ৮০৬ জন এবং মারা গেছেন এক লাখ ৮৪ হাজার ৬৭২ জন।
আক্রান্তে তৃতীয় এবং মৃত্যুতে দ্বিতীয় অবস্থানে থাকা ব্রাজিলে এখন পর্যন্ত করোনায় এক কোটি ৪১ লাখ ২২ হাজার ৭৯৫ জন সংক্রমিত হয়েছেন। মৃত্যু হয়েছে ৩ লাখ ৮১ হাজার ৬৮৭ জনের।
আক্রান্তের দিক থেকে চতুর্থ স্থানে রয়েছে ফ্রান্স। দেশটিতে এখন পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৫৩ লাখ ৭৪ হাজার ২৮৮ জন। ভাইরাসটিতে মারা গেছেন এক লাখ এক হাজার ৮৮১ জন।
আক্রান্তের দিক থেকে রাশিয়া রয়েছে পঞ্চম স্থানে। দেশটিতে এখন পর্যন্ত করোনায় সংক্রমিত হয়েছেন ৪৭ লাখ ২৭ হাজার ১২৫ জন। এর মধ্যে মারা গেছেন এক লাখ ৬ হাজার ৭০৬ জন।
এদিকে, আক্রান্তের তালিকায় তুরস্ক ষষ্ঠ, যুক্তরাজ্য সপ্তম, ইতালি অষ্টম, স্পেন নবম এবং জার্মানি দশম স্থানে রয়েছে। এই তালিকায় বাংলাদেশের অবস্থান ৩৩তম।
এছাড়া সর্বমোট মৃতের দিক থেকে তৃতীয় স্থানে থাকা মেক্সিকো সংক্রমণের দিক থেকে রয়েছে তালিকার ১৫ নম্বরে। দেশটিতে এখন পর্যন্ত আক্রান্তের সংখ্যা ২৩ লাখ ১১ হাাজর ১৭২ জন। যেখানে এ পর্যন্ত মারা গেছেন ২ লাখ ১৩ হাজর ৪৮ জন।
উল্লেখ্য, ২০১৯ সালের ডিসেম্বরের শেষ দিকে চীনের হুবেই প্রদেশের উহান থেকে করোনাভাইরাস সংক্রমণ শুরু হয়। এখন পর্যন্ত বাংলাদেশসহ বিশ্বের ২১৮টি দেশ ও অঞ্চলে ছড়িয়ে পড়েছে কোভিড-১৯।
ভারতে সংক্রমণের বিশ্বরেকর্ড : করোনা সংক্রমণে আগের সব রেকর্ড ভেঙেছে ভারতে। দেশটিতে গত ২৪ ঘণ্টায় ৩ লাখের বেশি মানুষ নতুন করে এই প্রাণঘাতী ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে। বিশ্বে এই প্রথম কোনও দেশে একদিনে ৩ লাখের বেশি মানুষ আক্রান্ত হলেন। অপরদিকে মারা গেছে ২ হাজারের বেশি মানুষ। আনন্দবাজার।
করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে পুরোপুরি বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে ভারত। কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় বৃহস্পতিবার সকালে এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে আক্রান্তের সংখ্যা ৩ লাখ ১৪ হাজার ৮৩৫, যা এখন পর্যন্ত সর্বোচ্চ দৈনিক সংক্রমণ। এমনকি যুক্তরাষ্ট্রের সর্বোচ্চ সংক্রমণের রেকর্ডও ভেঙে দিয়েছে ভারত।
গত জানুয়ারিতে যুক্তরাষ্ট্রে সর্বোচ্চ সংক্রমণ ছিল ২ লাখ ৯৭ হাজার ৪৩০। ভারতে গত কয়েকদিন ধরেই দৈনিক সংক্রমণ ২ লাখের বেশি। একদিন আগেই দেশটিতে আক্রান্তের সংখ্যা ছিল ২ লাখ ৯৫ হাজার ৪১ এবং একই সময়ে মারা গেছে ২ হাজার ২৩ জন।
এদিকে, গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা সংক্রমণে প্রাণ হারিয়েছে ২ হাজার ১০৪ জন। অর্থাৎ একদিন আগের তুলনায় আক্রান্ত এবং মৃত্যুর সংখ্যা বেড়েছে। ভারতে এখন পর্যন্ত আক্রান্ত হয়েছে ১ কোটি ৫৯ লাখ ৩০ হাজার ৯৬৫ জন। ভারতে করোনা সংক্রমণের শীর্ষে রয়েছে মহারাষ্ট্র, কেরালা, কর্ণাটক, তামিলনাড়ু, অন্ধ্র প্রদেশ এবং দিল্লি। মোট সংক্রমণের বেশিরভাগই এসব রাজ্যে।
এদিকে সংক্রমণের এই ঊর্ধ্বগতি ঠেকাতে আগামী ১ মে থেকে ভারতের ১৮ বছর বয়সী থেকে তদূর্ধ্ব সবাই টিকা নিতে পারবেন বলে ঘোষণা দিয়েছে কেন্দ্রীয় সরকার। ভ্যাকসিন প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠানগুলোকে মোট উৎপাদনের ৫০ শতাংশ পূর্বনির্ধারিত মূল্যে কেন্দ্রীয় সরকারকে এবং বাকি অংশ রাজ্য সরকার ও বাজারে বিক্রির জন্য দেয়ার নির্দেশ দেয়া হয়েছে।
উল্লেখ্য, গত দু’দিন ধরে দেশটিতে মৃত্যু তা দু’হাজার ছাড়াচ্ছে। সব মিলিয়ে দেশে করোনাভাইরাস ভারতে মৃত্যু হয়েছে ১ লাখ ৮৪ হাজার ৬৫৭ জনের।