দেশের মাদ্রাসাগুলোতে বলাৎকারের ঘটনা বেড়েই চলেছে

অপরাধ

নিজস্ব প্রতিনিধি : দেশের মাদ্রাসাগুলোতে শিশু নির্যাতনের ঘটনা বেড়েই চলেছে। আইন ও সালিশ কেন্দ্রের পরিসংখ্যান বলছে, ২০২০ সালে মাদ্রাসায় বলাৎকারের শিকার হয়েছে অন্তত ৫২ শিশু। এর মধ্যে অত্যাচার সহ্য করতে না পেরে মারা গেছে ৩ জন। এছাড়াও শুধু নভেম্বরেই ২৬টি বলাৎকারের ঘটনা গণমাধ্যমে প্রকাশ হয়েছে। তবে এই সংখ্যা আরো বেশি। বিভিন্নভাবে ধামাচাপা দিয়ে রাখার জন্য এসব অপকর্মের প্রকৃত হিসেব জানার উপায় নেই। তবে এই বছরের প্রথম তিন মাসে আরও ১০ শিশু ধর্ষণের শিকার হয়েছে বলে সংবাদ প্রকাশ হয়েছে।

যারা এই কুকর্মগুলো ঘটাচ্ছে, তাদের অধিকাংশই ঢাল হিসেবে ব্যবহার করছে ধর্মকে। মাদ্রাসা ও মসজিদের সঙ্গে যুক্ত থাকায়, বাহ্যিকভাবে তাদের একটা ধর্মীয় ইমেজ আছে। এজন্য তারা সবসময় সন্দেহের বাইরে থাকে। আর ছাত্রী বা মেয়েদের সঙ্গে কিছু করার ঝুঁকি বেশি। মানুষ সন্দেহ করে। কিন্তু ছেলে শিশুদের সঙ্গে যৌনাচারের ঘটনায় সহজে কেউ সন্দেহ করে না। একারণে ছেলে শিশুরাই তাদের নিরাপদ টার্গেট। বিভিন্ন বলাৎকারের ঘটনায় ধরা পড়ার পর অধিকাংশ ধর্ষকরাই এই তথ্য জানিয়েছে।

মাদ্রাসাপড়ুয়া কোমলমতি অসহায় শিশুদের সঙ্গে কথা বলুন। কোনো সন্দেহ হলে কণ্ঠখুলে আওয়াজ তুলুন। জনগণের অনুদানে পরিচালিত এসব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান থেকে যৌন বিকৃত ও উগ্রবাদীদের তাড়িয়ে দিন। ধর্মশিক্ষার জায়গা হোক প্রাণবন্ত।