জিনজিরামে চলছে অবৈধ বালু উত্তলন হুমকির মুখে বাগের হাট নতুন বাজার ফসলিজমি ও ঘরবাড়ি

সারাদেশ

রৌমারী(কুড়িগ্রাম) প্রতিনিধি : ভারতের সীমান্তবর্তী জিনজিরাম নদীতে শুষ্ক মৌসুমে অপরিকল্পিত ড্রেজিং মেশিনের সাহায্যে দীর্ঘ দিন ধরে বালু উত্তলন করে আসছিল কিছু অসাধু ব্যবসায়ী। যার ফলে শুধু ছোট এই শাখা নদী গুলোতে গভীর গর্তই হচ্ছিল না পরবর্তীতে বর্ষা মৌসুমে নদীর গতিপথ পরিবর্তীত হয়ে বেশকিছু ঘড়বাড়ি নদীগর্ভে বিলীন হয়ে বসতভিটা হারিয়ে পথে বসেছিল বেশকিছু পরিবার।
কথা হয় জিনজিরামের তীরবর্তী বাসিন্দাদের সাথে, মোছা ছামিনা (৫০) অভিযোগ করে বলেন , “ড্রেজার আলারা বাড়ী ঘর দুয়ার ভাংগার চেষ্ঠা করছে এই জল্লা জাগার উপর আছি বাড়ী ভিটে ভাংলে কঠাই জামু”।
মোছাঃ মোনোয়ারা ও পেয়ারা অভিযোগ করে বলেন “তোমরা আসেন টেহা নিবের , তোমার মত মেলা মানুষ সাংবাদিক,তসুলদার আসি দেহি যায় ড্রেজার তো বন্ধ করবের পান না”। এখানকার বালুদস্যুরা প্রভাবশালী হওয়ায় ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনার পর দু একদিন বন্ধ থাকলে ও পুনরায় চলে বালু উত্তলন । ড্রেজারের জালায় অতিষ্ঠ ভুক্তভোগীরা এ ব্যাপারে প্রসাশনের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।
সুধী জনেরা মনে করছেন, এরকম ভাবে সিমান্তবর্তী জিনজিরাম নদীতে ড্রেজার বসিয়ে বালু উত্তলন অব্যাহত থাকলে আগামী ৩/৪ বছরের মধ্যে নদীর গতি পথ পরিবর্তীত হয়ে জনপদ বিলীন হয়ে যাওয়ার আশঙ্কা রয়েছে।
এ ব্যাপারে রৌমারী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জনাব আল ইমরান বলেন, আমরা যখনি অভিযোগ পাচ্ছি অভিযোগের ভিত্তিতে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করে ব্যাবস্থা নিচ্ছি। জিনজিরামের ব্যাপারে অতিসত্তর ব্যাবস্থা নেওয়া হবে।