সেই লাকি ভাবি সাময়িক বরখাস্ত

অপরাধ আইন ও আদালত সারাদেশ

নিজস্ব প্রতিনিধি : নড়াইল সদর হাসপাতালের হিসাবরক্ষক ও এক সময়ের বিএনপির প্রভবশালী নেত্রী জাহান আরা খানম লাকি ওরফে ‘বড় ভাবি’র বিরুদ্ধে দুদকের মামলার পর সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। সদর হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক এ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

অভিযোগ রয়েছে, বিএনপিসহ চারদলীয় জোট সরকারের সময়ে জাহান আরা খানম লাকির নির্দেশে হাসপাতালের টেন্ডার, ডাক্তারি সার্টিফিকেট, অভ্যন্তরীণ বদলিসহ সবকিছুই চলতো। ডাক্তর-কর্মচারিরা ছিলো তটস্থ। নড়াইলের সকলের কাছে তিনি বড় ভাবি নামেও পরিচিত।

জাহান আরা খানম লাকি শহরের আলাদাতপুর এলাকার জেলা বিএনপির বর্তমান সিনিয়র সহ-সভাপতি ও সাবেক মেয়র জুলফিকার আলী মন্ডল ওরফে বড় ভাইয়ের স্ত্রী। দুদক সূত্রে জানা গেছে, লাকি বিগত জুলাই ২০১৯ হতে ফেব্রুয়ারি ২০২১ পর্যন্ত ৪৮ লক্ষ ১৭ হাজার ৯১২ টাকা আত্মসাত করেছেন মর্মে নড়াইল সদর থানার একটি সাধারণ ডায়েরি দুদকে পাঠানো হয়। সেই তথ্য অনুযায়ী দুদকের সহকারি পরিচালক মাহফুজ ইকবাল সিনিয়র স্পেশাল জজ আদালতে লাকির বিরুদ্ধে নিয়মিত মামলা দায়ের করেছেন। দুদক তদন্ত নং-১/২০২১।

দুর্নীতি দমন কমিশন সমন্বিত জেলা কার্যালয় যশোর (নড়াইল) এর উপ-পরিচালক নাজমুচ্ছায়াদাত মামলার বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

নড়াইল সদর হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডা. আব্দুস শাকুর বলেন, স্বাস্থ্য বিভাগ খুলনার পরিচালক স্বাক্ষরিত সাময়িক বরখাস্তের এ চিঠিটি বৃহস্পতিবার (২৯ এপ্রিল) নড়াইল সদর হাসপাতালে এসে পৌঁছেছে।

ডা. আব্দুস শাকুর বলেন, হিসাবরক্ষক লাকির বিরুদ্ধে গত ১৫ দিন আগে একটি বিভাগীয় তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়। তদন্ত কমিটি তাদের প্রতিবেদনে লাকির বিরুদ্ধে ৪৮ লাখ ১৯ হাজার ৮৮২ টাকা আত্মসাতের প্রমাণ পেয়েছেন। এর আগে ৭ এপ্রিল সদর হাসপাতালের পক্ষ থেকে একটি তদন্ত কমিটি গঠিত হয়। ওই কমিটির প্রতিবেদনেও টাকা আত্মসাতের ঘটনা ঘটেছে বলে উল্লেখ করা হয়।