এাবার কুরিয়ার সার্ভিসের মাধ্যমে মাদক পাচার

অপরাধ বরিশাল

৪৮৫০পিস ইয়াবাসহ ৩ মাদক ব্যাবসায়ী গ্রেফতার

 

নিজস্ব প্রতিনিধি : বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশের গোয়েন্দা শাখা কর্তৃক মাদক বিরোধী অভিযানে কুরিয়ার সার্ভিস এর মাধ্যমে মাদক দ্রব্য পাচার কালে ৪, ৮৫০ পিস ইয়াবা সহ ৩ জন মাদক ব্যাবসায়ী কে গ্রেফতার করেছে।

বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশ সুত্রে জানা যায়, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে গতকাল ২৯ এপ্রিল বৃহস্পতিবার বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশের নগর গোয়েন্দা শাখার অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার শেখ মোঃ সেলিম ও সহকারী পুলিশ কমিশনার স্টাফ অফিসার প্রকৌশলী শাহেদ আহমেদ চৌধুরী’র নেতৃত্বে, পুলিশ পরিদর্শক এইচ.এম. আবদুর রহমান মুকুল পিপিএম এর টিম এসআই সুজিত কুমার গোমস্তা সহ সঙ্গীয় এসআই মোঃ মনজুরুল হাসান, এএসআই মোঃ ইসমাইল হোসেন, এএসআই আঃ সালাম, নারী এএসআই আসমা আক্তার, কং মোঃ জাহাঙ্গীর হোসেন, কং মোঃ জনিরুজ্জামান, মোঃ জলিল হোসেন, আবু তাহের, অসিত কুমার (নারীও পুরুষ) অফিসারবৃন্দ নগরীর কোতয়ালী মডেল থানাধীন ১৪নং ওয়ার্ডস্থ বাংলাবাজার মোড়ে একটি কুরিয়ারের এর সামনে অভিযান পরিচালনা করেন।

অভিযান পরিচালনা কালে কাউনিয়া থানাধীন ৮নং ওয়ার্ডস্থ চরবাড়িয়া ইউপি’র মৃতঃ মোঃ তোফায়েল খান এর ছেলে মোঃ সজল খান(২৮) এবং ঝালকাঠি জেলার নলছিটি থানার ১নং ওয়ার্ডের মৃতঃ মোঃ আঃ হক এর ছেলে মোঃ শামীম হাওলাদার’কে বিকাল ৪ টার সময় ৩৮৫০ (তিন হাজার আটশত পঞ্চাশ) পিস ইয়াবা ট্যাবলেট সহ গ্রেফতার হয়।

গ্রেফতারের পর কৌশলী ও ব্যপক জিজ্ঞাস্যমতে সজল জানায়, তার ভাড়াটিয়া বাসায় আরও মাদক রয়েছে।

অতঃপর সজলের নলছিটি থানাধীন দপদপিয়া ইউপির ভাড়াটিয়া বাসায় তল্লাশি করে ১৭:৪৫ ঘটিকায় ১০০০(এক হাজার) পিস ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধার করেন এবং সাজলের সহযোগী (স্ত্রী) এ্যানি আক্তার লামিয়া কে গ্রেফতার করেন।

সর্বমোট উদ্ধার (৩৮৫০+১০০০) (চার হাজার আটশত পঞ্চাশ) পিচ ইয়াবা ট্যাবলেট, ১টি প্লাটিনা মোটর সাইকেল, ২টি মোবাইল ফোন, ১ টি টয় সাইকেল।

উল্লেখ থাকে যে, বিএমপি কমিশনার মোঃ শাহাবুদ্দিন খান বিপিএমবার কর্তৃক মাদকের বিষবৃক্ষ উপড়ে ফেলার কঠোর নির্দেশনায় নগরীতে আরও ব্যপক মাদক অভিযান পরিচালনা করেন বিএমপি ডিবি সহ অন্যান্য ক্রাইম ডিভিশন ফোর্স।

যার ফলশ্রুতিতে চক্রটি কৌশল অবলম্বন করে দীর্ঘদিন যাবৎ কুরিয়ার মাধ্যমে বাচ্চাদের খেলনার ভিতরে স্ক্রু দিয়ে আটকানো সিট কাভারের নিচে অভিনব কায়দায় প্লাষ্টিক কেটে ইয়াবা পাচার করে আসলেও অবশেষে নাছোড় বান্দা বিএমপি’র জালে ধরা পড়ে।

ধৃত আসামীদের বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট থানায় আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। চক্রের সাথে আরও কেউ জড়িত আছে কি-না তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে।