মানিক মিয়ার মৃত্যুবার্ষিকীতে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত

জাতীয়

নিজস্ব প্রতিবেদক : দৈনিক ইত্তেফাকের প্রতিষ্ঠাতা সম্পাদক তফাজ্জল হোসেন মানিক মিয়ার ৫২তম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে বাংলাদেশ জাতীয় গণতান্ত্রিক লীগ ও বঙ্গবন্ধু শিশু কল্যাণ কেন্দ্রের যৌথ উদ্যোগে মঙ্গলবার বিকেলে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে সমাবেশ ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন, সাবেক রাষ্ট্রদূত অধ্যাপক ড. নিম চন্দ্র ভৌমিক। প্রধান আলোচক হিসেবে বক্তব্য রাখেন, বঙ্গবন্ধু গবেষণা পরিষদের কেন্দ্রীয় সভাপতি লায়ন মো. গনি মিয়া বাবুল।
বঙ্গবন্ধু শিশু কল্যাণ কেন্দ্রের সভাপতি মুসফিকুর রহমান মিন্টুর সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ জাতীয় গণতান্ত্রিক লীগের সভাপতি এম এ জলিল, কাজী আরেফ ফাউন্ডেশনের সভাপতি কাজী মাসুদ আহমেদ, ন্যাপ ভাসানীর চেয়ারম্যান এম এ ভাসানী, পিপলস ডেমোক্রেটিক পার্টির সাধারণ সম্পাদক সিদ্দিকুর রহমান, বরিশাল বিভাগ সমিতির যুগ্ম সম্পাদক আ স ম মোস্তফা কামাল, জাসদ নেতা হুমায়ুন কবির ও নারীনেত্রী এলিজা রহমান।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে অধ্যাপক ড. নিম চন্দ্র ভৌমিক বলেন, তফাজ্জল হোসেন মানিক মিয়া সাংবাদিকতার মাধ্যমে বাঙালির নিজস্ব সংস্কৃতি বিকাশে অসামান্য অবদান রেখেছেন। স্বাধীন সার্বভৌম বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠায় তার ভূমিকা চিরদিন বাঙালি জাতি স্মরণ রাখবে।
প্রধান আলোচকের বক্তব্যে লায়ন মো. গনি মিয়া বাবুল বলেন, তফাজ্জল হোসেন মানিক মিয়া বাঙালি জাতির ইতিহাস ঐতিহ্যের সাথে ওতপ্রোতভাবে জড়িত রয়েছেন। মহান ভাষা আন্দোলন থেকে শুরু করে মুক্তিযুদ্ধে জনগণকে উদ্বুদ্ধ করা ও বিশ্ব জনমত গড়ে তুলতে তার গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা ছিল। পাকিস্তানী শাসকগোষ্ঠী শোষণ ও নির্যাতনের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ সৃষ্টির লক্ষ্যে তিনি ইত্তেফাকের রাজনৈতিক হালচাল ও পরবর্তী মোসাফির ছদ্মনামে নিয়মিত উপসম্পাদকীয় লিখতেন। তার এই লেখা রাজনৈতিক নেতাকর্মীসহ সকল পাঠকের কাছে খুবই জনপ্রিয় ছিল এবং তার উপসম্পাদকীয় গণসচেতনতা বাড়ানোসহ শোষণ-নির্যাতনের বিরুদ্ধে মানুষকে সংগঠিত করেছিল।