জাল টাকা তৈরী চক্রের ৩ সদস্য গ্রেফতার

অপরাধ

 

নিজাম উদ্দিন : রাজধানীর মিরপুর হতে বিপুল পরিমান জাল টাকা ও জাল টাকা তৈরির অত্যাধুনিক সরঞ্জামসহ সংঘবদ্ধ জাল টাকা তৈরী চক্রের ৩ সদস্যকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-২।

সময়ের সাথে পাল্লা দিয়ে অপরাধীরা নিত্য নতুন অপরাধ করছে তার মধ্যে প্রতারণা অন্যতম।

এক শ্রেণীর অসাধু চক্র আধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহার করে বিভিন্ন পদ্ধতিতে জাল টাকা তৈরী করে বাজারে ছড়িয়ে দিচ্ছে। জাল টাকা তৈরী থেকে শুরু করে বাজারজাত করণ পর্যন্ত বিভিন্ন পর্যায়ে স্তর ভিত্তিক লোক কাজ করে। দেশের সাধারণ জনগন ও ব্যবসায়ীদের কে জাল টাকার মাধ্যমে প্রতারিত হওয়া থেকে রক্ষার জন্য জাল টাকা চক্রকে ধরার পাশাপাশি বাজার থেকে জাল নোট উদ্ধারের লক্ষে র‌্যাব-২ নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে।
এরই ধারাবাহিকতায় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে র‌্যাব-২ এর একটি বিশেষ আভিযানিক দল গত ০৩/০৬/২০২১ খ্রিঃ তারিখ আনুমানিক ১৭০০ ঘটিকার সময় রাজধানীর মিরপুর এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে বাংলাদেশী ১,০০০ ও ৫০০ টাকা মূল্যমানের মোট ১৪,৯৬,০০০/- টাকার জাল নোট ও জাল টাকা তৈরীর বিপুল সংখ্যক সরঞ্জামসহ (১) ইমাম হাসান সাইফী(৩৭), পিতা-মোঃ আজাহার আলী, (২) মোঃ তৌহিদুল ইসলাম(২৭), পিতা-মোঃ নুরুল হক, (৩) মোঃ সাব্বির হোসাইন(২৫), পিতা-আঃ রউফ’দেরকে গ্রেফতার করেন।
গ্রেফতারকৃতদের প্রাথামিক জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায়, তারা (জাল টাকা তৈরীর) সংঘবদ্ধ চক্রের সদস্য। আসামীরা জানায়, তারা পরস্পর যোগসাজোশে মিরপুর এলাকায় বাসাভাড়া নিয়ে দীর্ঘদিন যাবৎ অবৈধভাবে কম্পিউটার ফটোশপ সফট্ওয়্যার ও বিভিন্ন প্রকার সরঞ্জাম ব্যবহার বাংলাদেশী বিভিন্ন মূল্যমানের টাকার জাল নোট তৈরী করে তা ঢাকাসহ বিভিন্ন এলাকায় সরবরাহ এবং বিক্রি করে আসছিলো। এ কাজে তারা অত্যাধুনিক কম্পিউটার, প্রিন্টার, ফটোকপি মেশিন, স্ক্রিন প্রিন্ট, ধাতব প্লেট (ডাইস), উন্নত মানের কাগজ, বিভিন্ন প্রকার কালি, বিভিন্ন ধাতব পাউডারসহ অনেক সরঞ্জামাদি ব্যবহার করত। এ কাজ তারা দীর্ঘদিন যাবত করে আসছে। গ্রেফতারকৃত আসামী ইমাম হাসান সাইফী(৩৭) ও মোঃ তৌহিদুল ইসলাম(২৭) বিরুদ্ধে বিভিন্ন থানায় একাধিক মামলার সন্ধান পাওয়া গেছে। আসামীদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন।