স্বাধীনতাই আমার চূড়ান্ত লক্ষ্য

জাতীয়

নিজস্ব প্রতিনিধি : ষাটের দশকের গোড়ার দিকে তৎকালীন নিষিদ্ধ কমিউনিস্ট পার্টির নেতা মণি সিং এবং খোকা রায়ের সাথে এক বৈঠকে মিলিত হন বঙ্গবন্ধু, তখন তার ভাবনায় ছিল কেবল একটি ধারণা। আর তা হলো- পূর্ব বাংলার বাঙালির স্বাধীনতা। সেই বৈঠকে বঙ্গবন্ধু বলেন, ‘গণতন্ত্র-স্বায়ত্তশাসন এসব কোনো কিছুই পাঞ্জাবিরা দেবে না। কাজেই স্বাধীনতা ছাড়া বাংলার মুক্তি নাই। স্বাধীনতাই আমার চূড়ান্ত লক্ষ্য।’ স্বাধীনতার অর্জনের জন্যই ছয় দফা ঘোষণা করেন বঙ্গবন্ধু। এবং পথে প্রান্তরে গণমানুষের কাছে মুক্তির প্রস্তুতি বার্তা পৌঁছে দেন।

ছয় দফা ঘোষণার পর, তৎকালীন পূর্ব-পাকিস্তান ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি (ন্যাপ)-এর প্রধান অধ্যাপক মোজাফ্ফর আহমদ বঙ্গবন্ধুকে জিজ্ঞেস করেছিলেন, ‘আপনি এই যে ছয় দফা দিলেন, তার মূল কথাটি কী?
আঞ্চলিক ভাষায় এই প্রশ্নের উত্তর দিয়েছিলেন বঙ্গবন্ধু। তিনি বলেন, ‘আরে মিয়া বুঝলা না, দফা তো একটাই। একটু ঘুরাইয়া কইলাম।’

মূলত, পাকিস্তানিদের শোষণ থেকে মুক্তির জন্য বাঙালির স্বাধীনতার দাবিই ছিল ছয় দফার মূল কথা। যার ভিত্তিতে ১৯৭০ সালের নির্বাচনে আওয়ামী লীগ একচেটিয়া জয় লাভ করে এবং ১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধের মাধ্যমে অর্জিত হয় মহান স্বাধীনতা।