ব্যবসায়ীকে হাতুড়ি দিয়ে পিটিয়ে গায়ে ‘আগুন’ দিয়ে হত্যা

অপরাধ

সিআইডির অভিযানে রহস্য উদঘাটন

নিজস্ব প্রতিবেদক : সাভারে আহসান হাবীব নামের এক ব্যবসায়ী দোকানের পাওনা টাকা আদায় করতে গিয়ে দেনাদারের হাতে নিহত হয়েছে। তাকে আগুনে পুড়িয়ে হত্যার পর লাশ গুমের চেষ্টা চালানো হয়েছে। আলোচিত ঘটনাটি পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ সিআইডি ঘাতকদের গ্রেফতার ও হত্যার রহস্য উদঘাটন করছে।
সিআইডি জানায়, গত ৭ মে সন্ধ্যায় ব্যবসায়ী আহসান হাবিব বাসা থেকে বের হয়েছিলেন। কিন্তু সেই রাতে আর বাসায় না ফেরায় তার পরিবারের পক্ষ থেকে একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) দায়ের করেন।
অপরদিকে ৭ মে রাতেই কালিয়াকৈর থানার হরিনহাটি এলাকার একটি বাসার নিচে থেকে আগুনে পোড়া অবস্থায় আহসান হাবীবকে স্থানীয় লোকজন উদ্ধার করে ঢাকায় শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ও প্লাস্টিক ইনিস্টিউটের নিয়ে যায়। পরের দিন ৮ মে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আহসান হাবীব মারা যান। এরপর তার পরিবার খোঁজাখুজি করে হাসপাতালে আহসান হাবীবের লাশ শনাক্ত করেন। পরে এই ঘটনায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করে নিহত আহসান হাবীবের শ্যালক। ওই মামলাটি তদন্ত করতে শুরু করে সিআইডি। তদন্তে নেমেই এজাহারনামীয় প্রধান আসামি মো. নুরুন নবীকে (২৭) গতকাল সোমবার রাতে কালিয়াকৈর থানা এলাকা থেকে গ্রেফতার করে সিআইডি।
দুপুরে সিআইডির অতিরিক্ত ডিআইজি শেখ নাজমুল ইসলাম এক সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা জানিয়ে তিনি বলেন, নিহত ব্যবসায়ী আহসান হাবীবের সাথে নুরুন নবীর ব্যবসায়ীক বিরোধ ছিলো। এরই জের ধরে নিহত আহসান হাবীবকে ঘটনার সময় তাকে হাতুড়ি দিয়ে পিটিয়ে আহত করে। এরপর গায়ে আগুন ধরিয়ে দিয়ে পালিয়ে যায়। আসামিকে আদালতে পাঠানো হয়েছে বলেও জানিয়েছে সিআইডি।