বরিশাল জেলার উজিরপুরে পতিপক্ষের হামলায় মুক্তিযোদ্ধা নিহত, আহত ৪ জন

অপরাধ

নিজস্ব প্রতিনিধি : বরিশাল জেলার উজিরপুর উপজেলাধীন ৭নং বামরাইল ইউনিয়নের ৬ নং ওয়ার্ড পশ্চিম আটিপাড়া গ্রামের মুক্তিযোদ্ধা সেকেন্ড কমান্ডার এবং বামরাইল ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃদেলোয়ার হোসেন তালুকদার তার প্রতিবেশীর সাথে জমি সংক্রান্ত বিষয়ে বিরোধের সৃষ্টি হয়, তারই জেরে প্রতিপক্ষের হামলায় মুক্তিযুদ্ধা দেলোয়ার হোসেন ও তার ৩ছেলে ও ১ পুত্র বধু গুরুতর আহত হয়।

আহতদের এলাকাবাসী বরিশাল শেরে- এ বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মুক্তিযুদ্ধা দেলোয়ার হোসেনকে মৃত ঘোষণা করেন এবং অন্যদের অবস্থা আসংখ্যজনক হওয়ায় ঢাকা পাঠিয়ে দেন।

ঘটনা স্থানে গিয়ে জানা যায় ২৯জুলাই সকাল ৮ টার সময় দেলোয়ার হোসেন তার বাড়ির পাশেই জমিতে ধান বীজ রোপন করাতে গেলে, সেখানে তার প্রতিবেশি আজগর সেপাই, নূর মোহাম্মদ সেপাই, সবুজ সেপাই, হাফিজুল সেপাই সহ ১৮-২০ জন মিলে চাপাটি, ইস্টিক, বাঁশ, ধারালো অস্ত্র দিয়ে দেলোয়ার হোসেন তালুকদারের মাথায় ও শরীরের বিভিন্ন জায়গায় আঘাত করে।

এবং তার ৩ ছেলে বিপ্লব, সোহাগ, জুয়েলসহ ছেলের বউ রেকসোনাকে মারাত্মক ভাবে আঘাত করে বর্তমানে তারা ঢাকা পঙ্গু হাসপাতালে ভর্তি আছেন। এ ঘটনা শুনে পুলিশ প্রশাসনের লোক সকাল থেকে সারাদিন ঘটনা স্থানে আছেন।

এদিকে মুক্তিযুদ্ধ দেলোয়ার হোসেনের মরা দেহ পোসমডেম শেষে ৩০জুলায় দুপুর ২ ঘটিকায় বাড়িতে নিয়ে আসেন এবং তার দাফন কাপনের ব্যবস্থা করেন।

এই সময় উপস্থিত ছিলেন উজিরপুর উপজেলা চেয়ারম্যান বাচ্চু শিকদার ও উজিরপুর নির্বাহী কর্মকর্তা, উজিরপুর উপজেলার মেয়র গিয়াস উদ্দিন বেপারী সহ মুক্তিযোদ্ধা কমান্ড সংসদের সভাপতি ও মুক্তিযোদ্ধারা।

আটিপাড়া ফাজিল মাদ্রাসার মাঠে ৩০ জুলাই বিকেল ৫ঃ৩০ মিনিটে জানাজার নামাজ শেষে রাষ্ট্রিয় মর্যাদায় গার্ড ওফ ওনার প্রদান করে পারিবারিক কবরস্থানে দাফন সম্পূর্ণ করা হয়।

জানাজায় উপস্থিত দূর দূরন্ত থেকে আসা সকলে এই হত্যকান্ঢের বিচারের দাবি জানিয়েছেন।