রাজউকের সাবেক কর্মকর্তা ও স্ত্রীর বিরুদ্ধে দুদকের মামলা

অপরাধ আইন ও আদালত

নিজস্ব প্রতিবেদক : জ্ঞাত আয়বহির্ভূত সম্পদ অর্জনের অভিযোগে রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের (রাজউক) সাবেক সহকারী পরিচালক মো. রফিকুল ইসলাম সরকার ও তার স্ত্রী মোসা. ফাতেমা বেগমের বিরুদ্ধে পৃথক দুটি মামলা করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

বৃহস্পতিবার (২৮ জানুয়ারি) দুদক প্রধান কার্যালয়ের উপ-পরিচালক দেওয়ান সফিউদ্দিন আহমেদ মামলা দুটি করেন। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন কমিশনের পরিচালক (জনসংযোগ) প্রণব কুমার ভট্টাচার্য্য।

জ্ঞাত আয়বহির্ভূত সম্পদ অর্জন করার দায়ে এই দম্পতির বিরুদ্ধে ২০০৪ এর ২৬ (২) ২৭(১) ধারা তথা মানি লন্ডারিং প্রতিরোধ আইন, ২০১২ এর ৪ (২) ধারায় দুটি পৃথক মামলা করা হয়।

মামলার অভিযোগে বলা হয়েছে, রাজউকের এই সাবেক সহকারী পরিচালক ২৯ লাখ ৮ হাজার ৮৭৭ টাকার সম্পদের তথ্য গোপন ও জ্ঞাত আয়বহির্ভূত অবৈধ সম্পদ অর্জন করেন। তার আয়ের কোনো বৈধ উৎস না থাকায় তিনি তা ঘুষ ও দুর্নীতির মাধ্যমে অর্জন করেছেন বলে প্রতীয়মান হয়েছে।

পাশাপাশি রাজউকের এই কর্মকর্তার স্ত্রী ফাতেমা বেগম স্বামীর সঙ্গে পরস্পর যোগসাজশে জ্ঞাত আয়বহির্ভূত ২৬ লাখ ৭৪ হাজার ৫৬১ টাকার স্থাবর-অস্থাবর সম্পদ অর্জন করেন এবং এই সম্পদ স্থানান্তর, হস্তান্তর ও রূপান্তরের মাধ্যমে নিজের দখলে রেখে অপরাধ করেছেন।

মামলার বিবরণ থেকে আরও জানা যায়, ফাতেমা বেগম আয়ের উৎসে ব্যবসা ও দোকান ভাড়ার কথা উল্লেখ করেছেন। কিন্তু দুদকের অনুসন্ধানে তার কোনো প্রমাণ পাওয়া যায়নি। অন্যদিকে রাজউকের একটি প্লট স্বামীর নাম গোপন করে তার বাবার নাম ব্যবহার করে প্রতারণা মাধ্যমে অর্জন করেন।