ভোটারদের ভয়ভীতি বা বাঁধাগ্রস্থ করলে বরদাস্ত করা হবে না : সিইসি

সারাদেশ

কেশবপুর প্রতিনিধি : আগামী ২৮ ফেব্রুয়ারি যশোরের কেশবপুর পৌরসভা নির্বাচন উপলক্ষ্যে ভোট গ্রহণ কর্মকর্তাদের সাথে মতবিনিময় সভাশেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে প্রধান নির্বচন কমিশন কে এম নুরুল হুদা বলেন, নির্বাচন অবাধ, সুষ্ঠ ও নিরপেক্ষভাবে অনুষ্ঠিত হবে। কোন প্রার্থীর বিরুদ্ধে আচরণবিধি বহির্ভূত লিখিত অভিযোগ পেলে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। পৌরসভা নির্বাচনে ইভিএমের মাধ্যমে ভোটাররা তাদের মূল্যবান ভোট প্রয়োগ করবেন। ভোট কেন্দ্রে এসে ভোটাররা নির্বিঘেœ তাদের পছন্দের প্রার্থীকে ভোট দিতে পারবেন। ভোটারদের কোন প্রার্থীর কর্মীরা ভয়ভীতি বা বাঁধাগ্রস্থ করলে বরদাস্ত করা হবে না। দাঙ্গা-হাঙ্গামা ও প্রভাব বিস্তারের কোন সুযোগ নেই। প্রশাসনকে কঠোর দিকনির্দেশনা দেয়া হয়েছে। নির্বচনে সুষ্ঠু ও শান্তি শৃঙ্খলা বজায় রাখার লক্ষ্যে সার্বক্ষণিক নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট, পুলিশ ও র‌্যাবের মোবাইল টিম জোরদার রয়েছে। নির্বাচনের পরিবেশ অত্যন্ত ভালো। কোন ঝুঁকি নেই। ইভিএমে ভোট প্রদানে ভোটারদের কোন অসুবিধা হবে না।
যশোরের কেশবপুর পৌরসভা নির্বাচন সুষ্ঠুভাবে স¤পন্ন করার লক্ষ্যে সোমবার দুপুরে উপজেলা পরিষদের মিলনায়তনে ভোট গ্রহণ কর্মকর্তাদের সাথে মতবিনিময় সভাশেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে প্রধান নির্বাচন কমিশনার কে এম নূরুল হুদা এসব কথা বলেন।
যশোর জেলা প্রশাসক তমিজুল ইসলাম খানের সভাপতিত্বে ভোট গ্রহণ কর্মকর্তাদের সাথে মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতা করেন, প্রধান নির্বাচন কমিশনার কে এম নূরুল হুদা। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন (ইভিএম) এর প্রকল্প পরিচালক ব্রিগ্রেডিয়ার আবুল কাশেম, যশোর জেলা পুলিশ সুপার প্রলয় কুমার জোয়ারদার, বিভাগীয় নির্বাচন অফিসার ইউনুচ আলী, যশোর জেলা নির্বাচন অফিসার হুমায়ূন কবির ও কেশবপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার এম এম আরাফাত হোসেন। আগামী ২৮ ফেব্রুয়ারি কেশবপুর পৌরসভা নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।